শিরোনাম
রাণীনগরে আলোচিত মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার-বরেন্দ্র নিউজ কুড়িগ্রামে ঢাকা নার্সিং কলেজের ‘স্টুডেন্টম্ ওয়েলফেয়ার অরগানাইজেশন’ এর কম্বল বিতরণ-বরেন্দ্র নিউজ কুড়িগ্রামে ফের ঘন কুয়াশায় শৈত্য প্রবাহের আশঙ্কা-বরেন্দ্র নিউজ ভোলাহাটে কম্বল বিতরণ করলো মানবিক ফাউন্ডেশন-বরেন্দ্র নিউজ ভোলাহাটে মহানন্দা নদী থেকে অজ্ঞাত পরিচয়ের লাশ উদ্ধার-বরেন্দ্র নিউজ সাপাহার মডেল প্রেসক্লাবের ৩য় বর্ষপূর্তি উদযাপন-বরেন্দ্র নিউজ ডোমারে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষন, ধর্ষক রাকিব গ্রেফতার-বরেন্দ্র নিউজ সুন্দর বনে বাঘের আক্রমণে জেলে আহত-বরেন্দ্র নিউজ কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সহসভাপতি নির্বাচিত হলেন সাংবাদিক এম. এ.গাজী-বরেন্দ্র নিউজ ধামইরহাটে জমি দখলকে কেন্দ্র করে দিনের বেলায় ফসল ধ্বংস করলো প্রতিপক্ষরা-বরেন্দ্র নিউজ ভোলাহাটে ইভিএমে ভোট প্রদান বিষয়ক অবহতিকরণ গম্ভীরা গান পরিবেশন-বরেন্দ্র নিউজ
বাবা-ছেলে-মেয়ে-নাতি একসঙ্গে এইচএসসি পাস-বরেন্দ্র নিউজ

বাবা-ছেলে-মেয়ে-নাতি একসঙ্গে এইচএসসি পাস-বরেন্দ্র নিউজ


স্বপন কুমার রায় খুলনা ব্যুরো প্রধান:
২০২১ সালের উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে আজ রবিবার। এবারের প্রকাশিত ফলাফলে খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার তাইন্দং ইউনিয়নের একটি পরিবার নজর কেড়েছে এলাকাবাসীর। সেখানে বাবা-ছেলে-মেয়ে ও নাতি একসঙ্গে এইচএসসি পাস করেছেন!

জানা গেছে, ৫০ বছর বয়সে উচ্চ মাধ্যমিক (আলিম) পাস করেছেন তাইন্দং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম। শুধু তাই নয় তার ছোট মেয়ে, একমাত্র ছেলে এবং বড় মেয়ের ঘরের নাতিও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন এবার। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের শুভেচ্ছায় সিক্ত করছেন স্থানীয়রা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সিরাজুল ইসলামের ছয় মেয়ে এক ছেলে। এবার পরীক্ষায় ছোট মেয়ে মাহমুদা সিরাজ খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ থেকে মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ ৪.১৭ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। একমাত্র ছেলে হাফেজ নেসার উদ্দিন আহম্মেদ চট্টগ্রাম বাইতুশ শরফ কামিল মাদ্রাসা থেকে জিপিএ ৪.০০ পেয়েছেন। সিরাজুল ইসলামের বড় মেয়ের ঘরের নাতি নাজমুল হাসান খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ থেকে মানবিক বিভাগে জিপিএ ৪.৬৭ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। আর সিরাজুল ইসলাম খাগড়াছড়ি ইসলামিয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসা থেকে জিপিএ ২.১৪ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। চমক দেখিয়ে এ বয়সে কেন পরীক্ষা দিলেন এমন প্রশ্নের জবাবে সিরাজুল গণমাধ্যমকে বলেন, দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত শিক্ষার কিন্তু শেষ নেই। আমার আগ্রহ ছিল বটেই, আমাকে দেখে অন্যরাও উৎসাহ পাবে এ ভাবনা থেকে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছি।

উল্লেখ্য, পেশায় ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম ১৯৯২ থেকে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত মাটিরাঙ্গার তাইন্দং ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য ছিলেন। পরবর্তীতে ২০০৩ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




<figure class=”wp-block-image size-large”><img src=”http://borendronews.com/wp-content/uploads/2020/07/83801531_943884642673476_894154174608965632_n-1-1024×512.jpg” alt=”” class=”wp-image-17497″/></figure>

© All rights reserved © 2019 borendronews.com
Design BY LATEST IT