শিরোনাম
নবজাতক বিক্রি করা সেই দম্পতি পেল উলিপুর উপজেলা প্রশাসনের সহায়তা-বরেন্দ্র নিউজ ধামইরহাটে মালাহার মাদরাসা ও সফিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন ভবন উদ্বোধন-বরেন্দ্র নিউজ শিবগঞ্জে সাংবাদিক তারেক রহমানের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন-বরেন্দ্র নিউজ রাজারহাটে সিএনজি- পিকআপ ভ্যান মুখোমুখী সংঘর্ষে বৃদ্ধের মৃত্যু-বরেন্দ্র নিউজ রাণীনগরে উপকার করতে গিয়ে কৃষক হারালেন প্রান-বরেন্দ্র নিউজ সন্তানদের পিতৃ পরিচয়ের দাবিতে রাজারহাটে অনশন করছেন ময়মনসিংহের লায়লা বেগম-বরেন্দ্র নিউজ পঞ্চগড়ে আমাদের কন্ঠ পত্রিকার ১৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন-বরেন্দ্র নিউজ এমপি শিমুলের ক্যাডার বাহিনীর হামলার শিকার সাংবাদিক তারেক-বরেন্দ্র নিউজ গোমস্তাপুরে জাতীয় বীমা দিবস পালিত-বরেন্দ্র নিউজ দিনাজপুরের নবাগত জেলা প্রশাসককে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানালেন আঃ মালেক মন্ডল-বরেন্দ্র নিউজ
ভোলাহাটে পয়ঃনিষ্কাশন বন্ধের কারণে ৬’শ বিঘা জমির ধান নষ্ট-বরেন্দ্র নিউজ

ভোলাহাটে পয়ঃনিষ্কাশন বন্ধের কারণে ৬’শ বিঘা জমির ধান নষ্ট-বরেন্দ্র নিউজ


নিজস্ব প্রতিবেদক: ভোলাহাটে জলমহলের ইজারাদার পয়ঃনিষ্কাশন বন্ধ করে দেয়ায় পানির নিচে ৬’শ বিঘা জমির ধান তলিয়ে নষ্ট হয়ে একেবারে নিশ্চিহৃ হয়ে গেছে। উপজেলার মুশরীভূজার ৭৫জন ভূক্তভূগি কৃষক গত ১৫ অক্টোবর স্থাণীয় সংসদ সদস্যসহ জেলা প্রশাসক, উপজেলা নিবার্হী অফিসার, কৃষি অফিসার, মৎস্য অফিসার বরাবর প্রতিকার চেয়ে অভিযোগপত্র প্রদান করেছেন। অভিযোগপত্রে জানা যায়, মুশরীভূজা, চামামুশরীভূজা, নামোমুশরীভূজা, ঘাইবাড়ী, বারইপাড়া, জাগলবাড়ী ও রঘুনাথপুর মৌজার প্রায় ৬’শ বিঘা জমির আউশ ধান পানির নিচে তলিয়ে গেছে। ফলে ১০/১২ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিলভাতিয়া জলমহল ইজারাদার সোনাজোলের ব্রীজের নিচে বালির বস্তা ফেলে বঁাধ দিয়ে পয়ঃনিষ্কাশন বন্ধ করে দেয়। ফলে রোপন করা আউস ধান তলিয়ে যায়। পয়ঃনিষ্কাশন বন্ধ না থাকলে দ্রুত পয়ঃনিষ্কাশন হয়ে ধানগুলো জেগে উঠতো। কিন্তু জলমহল ইজারাদারেরা ব্যক্তিগত ভাবে লাভবানের আশায় পয়ঃনিষ্কাশন বন্ধ করায় পানি নেমে যেতে পারেনি। ফলে প্রায় ৬’বিঘা জমির আউশ ধান পানির নিচে থাকায় তাদের ছাড়া রাক্ষসি মাছ ধানগুলো খেয়ে নিশ্চিহৃ করে ফেলেছে। এত ভূক্তভূগি কৃষকেরা সর্বসান্ত হয়ে পড়েছেন। ভূক্তভূগি কৃষক লোকমান আলী আলী জানান, ধান নষ্ট হওয়ায় এ এলাকার প্রায় ১’শ পরিবারের ৫’শ মানুষকে না খেয়ে মরতে হবে। বিলভাতিয়া ইজারাদারদের কারণে তাদের ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে। অপরএকজন কৃষক মেজারুল হক জানান, রাক্ষসি মাছে তাদের সব ধান খেয়ে শেষ করে ফেলেছে। আশায় বুক বেঁধে ধান রোপন করে ডালভাত খেয়ে সংসারের সদস্যদের নিয়ে বঁাচতাম। কিন্তু ইজারাদারদের কারণে আজ সর্বসান্ত। তিনি ক্ষতিপূরণের দাবী করেন। রজব আলী জানান, ঘরে একটি ধানও তুলতে পারবো না। সব খেয়ে শেষ করেছে রাক্ষসি মাছে। পরিবারের সদস্যদের মুখে দু’মুঠো ভাত তুলে দেয়ার ক্ষমতা নেই বলে কেঁদে ফেলেন। এদিকে বিলভাতিয়ার ইজারাদার বজলুর রহমানের পার্টনার জেমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বঁাধ দিয়ে পায়ঃনিষ্কাশন বন্ধের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ব্রীজে কোন বঁাধ দেয়া হয়নি এবং যে সব ধানের জমি ডুবে আছে সেগুলো প্রপোজালেল জমি। সরকার জলাশয়ের জন্য লাল কালি দিয়ে বাতিল করেছে। ভূক্তভূগি কৃষকের অভিযোগের ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার আসাদুজ্জাবান অভিযোগপত্রটি পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন। তিনি বলেন, উপজেলা নিবাহী অফিসারের সাথে সমন্বয় করে সরজমিন তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




<figure class=”wp-block-image size-large”><img src=”http://borendronews.com/wp-content/uploads/2020/07/83801531_943884642673476_894154174608965632_n-1-1024×512.jpg” alt=”” class=”wp-image-17497″/></figure>

© All rights reserved © 2019 borendronews.com
Design BY LATEST IT